Logo
Notice :
Welcome To Our Website...
ভোলায় ভেঙে যাওয়া বাঁধ মেরামত, এলাকাবাসীর মাঝে স্বস্তি

ভোলায় ভেঙে যাওয়া বাঁধ মেরামত, এলাকাবাসীর মাঝে স্বস্তি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক // ভোলা সদর উপজেলার পূর্ব ইলিশা এলাকায় ভেঙে যাওয়া বাঁধ মেরামত করা হয়েছে অবশেষে ৮ দিনের দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর ভোলায় ভেঙে যাওয়া বাঁধ পরিপূর্ণভাবে মেরামত করা সম্ভব হয়েছে। শুক্রবার জোয়ারের পানি আর লোকালয়ে প্রবেশ করেনি। তবে বাঁধ সংস্কারের কাজ নিয়ে এলাকাবাসীর মিশ্র প্রতিক্রিয়া রয়েছে। আরও মজবুত করে বাঁধ মেরামত করার দাবি জানিয়েছেন তারা।

স্থানীয়রা জানান, জরুরি ভিত্তিতে যেভাবে বাঁধ মেরামত করা হয়েছে, তাতে সাময়িকভাবে পানি আটকানো গেছে। তবে আগামী পূর্ণিমার জোয়ারের সময় আবারও লোকালয়ে পানি প্রবেশ করতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তারা। টেকসই ও মজবুত করে বাঁধ সংস্কারের কাজ করার দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

শুক্রবার সরেজমিনে দেখা যায়, বাঁধ মেরামত শেষ হওয়ায় স্বস্তি ফিরে এসেছে ভোলা সদর উপজেলার পূর্ব ইলিশা ইউনিয়নের ১২ গ্রামের কয়েক হাজার মানুষের মাঝে। শুক্রবার লোকালয়ে পানি প্রবেশ না করায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ ঘুরে দাঁড়ানোর কাজে নেমে পড়েছেন। তবে এখনো কোথাও কোথাও পানি জমে আছে।

পানের বরজ, পেঁপে বাগান এবং বাগানের অনেক গাছ মরতে শুরু করেছে। তবে তারা জানান, যে পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে, তাতে সরকারি সহায়তা ছাড়া ঘুরে দাঁড়ানো তাদের জন্য কষ্টকর পয়ে পড়বে।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক সাংবাদিকদের জানান, ইতোমধ্যে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে শুকনো খাবার ও চাল বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের জন্য তালিকা তৈরি হচ্ছে।

ভোলা পানি উন্নয়ন বোর্ড-১ এর নির্বাহী প্রকৌশী হাসানুজ্জামান জানান, বৃহস্পতিবার রাতে ভেঙে যাওয়া বাঁধ মেরামতের কাজ শেষ হয়েছে। এখনো ঝুঁকিপূর্ণ অন্যান্য এলাকার বাঁধ মেরামতের কাজ চলছে।

উল্লেখ্য, গত ২০ আগস্ট ভোলা সদর উপজেলার পূর্ব ইলিশা এলাকায় বাঁধ ভেঙে ১২টি গ্রাম প্লাবিত হয়। এতে কয়েক হাজার পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়ে। ক্ষতিগ্রস্ত হয় রাস্তাঘাট ও ঘর বাড়ি। ভেসে যায় পুকুরের মাছ, ক্ষেতের ফসল।

তাৎক্ষণিক পানি উন্নয়ন বোর্ড ভেঙ্গে যাওয়া বাঁধ মেরামতের কাজ শুরু করে। কিন্তু বৈরী আবহাওয়া এবং জোয়ারের পানির চাপের কারণে বাঁধ মেরামত করতে পারেনি। অবশেষ বৃহস্পতিবার রাতে ভেঙে যাওয়া বাঁধটি পাইলিং করে জিও ব্যাগ, জিও টিউব ও মাটি দিয়ে মেরামত করতে সক্ষম হয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *