Logo
Notice :
Welcome To Our Website...
রাজধানীতে ধর্ষণবিরোধী মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ-ধস্তাধস্তি

রাজধানীতে ধর্ষণবিরোধী মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ-ধস্তাধস্তি

বাংলাদেশ ক্রাইম // নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টা ও বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার ঘটনায় রাজধানীর শাহবাগে ধর্ষণবিরোধী গণজমায়েত থেকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে কালো পতাকা মিছিল শুরু হয়েছিল। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই পুলিশি বাধার মুখে পড়েছে ধর্ষণবিরোধী মিছিলটি।

মঙ্গলবার (০৬ অক্টোবর) দুপুর ১২টা থেকে ‘ধর্ষকের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ’ ব্যানারে ধর্ষণবিরোধী গণজমায়েত শুরু হয়। এরপর দুপুর ১টা ১০ মিনিটের দিকে শাহবাগ মোড় থেকে কালো পতাকা মিছিল বের করা হয়।

সরেজমিনে দেখা গেছে, মিছিলটি রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল এলাকায় পৌঁছালে আন্দোলনকারীদের বাধা দেয় পুলিশ। এমনকি তাদের ওপর পুলিশের লাঠিচার্জ করতেও দেখা গেছে। পরে পুলিশের সঙ্গে ছাত্র ইউনিয়নের সদস্যদের ধস্তাধস্তি শুরু হয়।

পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কালো পতাকা মিছিল করতে যায় ছাত্র ইউনিয়ন।

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে এক গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন ও সারা দেশে সংঘটিত ধর্ষণের ঘটনার প্রতিবাদ ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে এই কর্মসূচি পালন করছেন তারা।

মঙ্গলবার সকালে শাহবাগে গিয়ে দেখা যায়, সংগঠনের নেতাকর্মীরা শাহবাগ জাদুঘরের সামনে জড়ো হতে শুরু করেছে। আন্দোলনকারীরা কালো পতাকা হাতে নিয়ে নানা ধরনের ধর্ষণবিরোধী স্লোগান দিচ্ছেন।

কর্মসূচি সম্পর্কে মেহেদী হাসান নোবেল বলেন, আমাদের আজকের কর্মসূচি হচ্ছে কালো পতাকা প্রদর্শন করে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের উদ্দেশ্যে যাত্রা। আমরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ চাই। এমন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দরকার নেই।

আমরা ধর্ষণের বিচার এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ব্যর্থতার কারণে তার পদত্যাগের দাবিতে আজকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কালো পতাকা মিছিল করছি। আমরা চাই এই আন্দোলনের মাধ্যমে সারাদেশে গণজাগরণ তৈরি করে বাংলাদেশ থেকে ধর্ষণ নামক শব্দটিকে তুলে দিতে পারবো, মুছে দিতে পারবো।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *