Logo
Notice :
Welcome To Our Website...
বসলো ৩৩তম স্প্যান, পদ্মা সেতুর ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান

বসলো ৩৩তম স্প্যান, পদ্মা সেতুর ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান

বাংলাদেশ ক্রাইম // পদ্মা সেতুতে মাত্র আট দিনের ব্যবধানে বসানো হয়েছে ৩৩তম স্প্যানটি। আজ সোমবার সকালে মাওয়া প্রান্তে সেতুর ৩ ও ৪ নম্বর পিয়ারের ওপর ১-সি স্প্যানটি বসানো হয়। এর মাধ্যমে সেতুর ৪ হাজার ৯৫০ মিটার বা প্রায় ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান হলো।

গতকাল রোববার রাতে সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী ও প্রকল্প ব্যবস্থাপক (মূল সেতু) দেওয়ান মো. আবদুল কাদের স্প্যান বসানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। ৩৩তম স্প্যানটি বসানোর ফলে পদ্মা সেতুর ওপর আর মাত্র আটটি স্প্যান বসানো বাকি থাকলো।

সেতুর প্রকৌশল বিভাগ জানিয়েছে, করোনা ও বন্যার কারণে স্প্যান বসানোর কার্যক্রমে ধীরগতি দেখা দিয়েছিল। বর্তমানে পদ্মা নদীতে পানির গভীরতা অনুকূলে আসায় প্রকৌশলীরা স্প্যান বসানোর কাজে গতি এনেছেন।

এর আগে গত ১১ অক্টোবর পদ্মা সেতুর ৪ ও ৫ নম্বর খুঁটির ওপর স্থাপন করা হয় ৩২তম স্প্যান। ৩১তম স্প্যান বসানোর ৪ মাস পর এই স্প্যানটি বসানো হয়েছিল।

এদিকে, পদ্মা সেতুতে এবার আটটি স্প্যান বসানোর কাজ শুরু হবে। আগামী ২৫ অক্টোবর পিয়ার ৭ ও ৮ নম্বরের ওপর ৩৪তম স্প্যান (স্প্যান ২-এ), ৩০ অক্টোবর পিয়ার ৮ ও ৯ নম্বরের ওপর ৩৫তম স্প্যান (স্প্যান ২-বি), ৪ নভেম্বর পিয়ার ২ ও ৩ নম্বরে ৩৬তম স্প্যান (স্প্যান ১-বি), ১১ নভেম্বর পিয়ার ৯ ও ১০ নম্বরে ৩৭তম স্প্যান (স্প্যান ২-সি), ১৬ নভেম্বর পিয়ার ১ ও ২ নম্বরে ৩৮তম স্প্যান ( স্প্যান ১-এ), ২৩ নভেম্বর পিয়ার ১০ ও ১১ নম্বরে ৩৯তম স্প্যান (স্প্যান ২-ডি), ২ ডিসেম্বর পিয়ার ১১ ও ১২ নম্বরে ৪০তম স্প্যান (স্প্যান ২-ই) ও সর্বশেষ ৪১ নম্বর স্প্যান (স্প্যান ২-এফ) বসবে আগামী ১০ ডিসেম্বর ১২ ও ১৩ নম্বর পিয়ারের ওপর। এর ফলে আগামী ১০ ডিসেম্বরই পুরো সেতুটি দৃশ্যমান হবে।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে ৬.১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ দ্বিতল পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। ৩০ হাজার ১৯৩ দশমিক ৩৯ কোটি টাকা ব্যয়ে গৃহীত এই প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৮১ দশমিক ৫০ ভাগ এবং আর্থিক অগ্রগতি ৮৭ দশমিক ৫৫ ভাগ। নদী শাসন কাজের বাস্তব অগ্রগতি ৭৪ দশমিক ৫০ ভাগ। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ পর্যন্ত মোট ব্যয় হয়েছে ২৩ হাজার ৭৯৬ দশমিক ২৪ কোটি টাকা।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *