Logo
Notice :
Welcome To Our Website...
দেশকে এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করব, মুক্তি প্রসঙ্গে সাকিব

দেশকে এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করব, মুক্তি প্রসঙ্গে সাকিব

বাংলাদেশ ক্রাইম // অপেক্ষার পালা শেষ হতে চলেছে। আজ বুধবার রাত ১২টা থেকে সাকিব আল হাসানের ওপর থাকা আইসিসির এক বছরের নিষেধাজ্ঞা উঠে যাচ্ছে। এরপর থেকে সব ধরনের ক্রিকেট খেলতে আর বাধা থাকবে না সাবেক এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের। সাকিব এখন পরিবারের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন। তার মুক্তি উপলক্ষে নিউইয়র্ক প্রবাসী বাংলাদেশিরা সাকিবকে সংবর্ধনা দিয়েছেন।  অনুষ্ঠান শেষে সাকিব জানিয়েছেন, তিনি নিজের সেক্টরে (ক্রিকেটের মাধ্যমে) দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করবেন।

সাকিব বলেন, ‘আশা করছি আপনারা আন্তরিকতা, ভালোবাসা, সাপোর্ট সবসময় আমাদেরকে দেবেন। আমাকে, বাংলাদেশের ক্রিকেটকে, বাংলাদেশের মানুষকে, বাংলাদেশকে ইনফ্যাক্ট। যেভাবে আমরা আমাদের দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারব। আমি আমার সেক্টরকে এগিয়ে নিয়ে যাবার চেষ্টা করব, আপনারাও আপনাদের জায়গা থেকে এগিয়ে নেবার চেষ্টা করবেন।’

সংবর্ধনার শুরুতেই সাকিব মহামারি করোনা যাদের প্রাণ নিয়েছে তাদের আত্মার মুক্তি কামনা করেছেন। ভাইরাস থেকে সাবধান থাকার আহ্বান জানিয়ে সাকিব বলেন, ‘এখানে অনেকবারই এসেছি, অনেকের সাথেই দেখা হয়েছে, পরিচয় হয়েছে। এই করোনার কারণে এবার অনেককেই আমরা দেখতে পাইনি। আমরা যাদের হারিয়েছি তাদের বিদেহী আত্মার জন্য মাগফিরাত কামনা করব। আমি আশা করব আপনারা সবাই তাদের জন্য দোয়া করবেন। আশা করছি যারা আমরা সুস্থ আছি তারা যেন সুস্থতা বজায় রেখে চলতে পারি।’

জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় গত বছর অক্টোবর মাসেই সব ধরনের ক্রিকেটে সাকিবকে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা দেয় আইসিসি। এর মধ্যে রয়েছে এক বছরের স্থগিত নিষেধাজ্ঞা। আইসিসির দুর্নীতিবিরোধী নীতিমালার আইন লঙ্ঘনের অপরাধে সাকিবকে এ শাস্তি দেয় বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এ শাস্তি মেনেও নেন বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল এই ক্রিকেটার। এক দিন পর ক্রিকেটে ফিরলেও ভবিষ্যতে যদি একই ধরনের অপরাধ করেন তা হলে সাকিবের এক বছরের স্থগিত নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে।

এক বছরের নিষেধাজ্ঞা মুক্ত হয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ দিয়ে ক্রিকেটে ফেরার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল তার। এজন্য করোনা পরিস্থিতির মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র থেকে উড়ে এসে বিকেএসপির মাঠে নিবিড় অনুশীলনও করেন বাংলাদেশের বিশ্ব তারকা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শ্রীলংকা সফর আপাতত স্থগিত হয়ে যাওয়ায় আবারও যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের কাছে চলে যান সাকিব।

অবশ্য সেখানে নিজেকে তৈরি করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্ত হয়েই খেলায় ফিরবেন সাকিব। আগামী মাসেই ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট দিয়ে আবারও ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তন হবে তার। পাঁচ দলের একটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ আয়োজন করবে বিসিবি। আগামী নভেম্বরের ১৫ তারিখ টুর্নামেন্ট শুরুর সম্ভাব্য তারিখ ঠিক করেছে বোর্ড। এই টুর্নামেন্টের মধ্য দিয়ে সাকিব ক্রিকেটে ফিরবেন বলে জানিয়ে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *