Logo
Notice :
Welcome To Our Website...
এক নির্বাচনে বিভাজন দূর হবে না : ওবামা 

এক নির্বাচনে বিভাজন দূর হবে না : ওবামা 

বাংলাদেশ ক্রাইম // যুক্তরাষ্ট্রে সমাজের মানুষের মধ্যে যে বিভাজন তৈরি হয়েছে তা কেবল এক নির্বাচনে দূর হবে না বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। ওবামা তার নতুন গ্রন্থ ‘এ প্রমিজড ল্যান্ড’ নিয়ে বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে এ কথা বলেন।

বারাক ওবামা বলেন, ‘বিভাজনের এই সংস্কৃতিকে পরিবর্তন করতে যুক্তরাষ্ট্রকে আরও কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যেতে হবে। সমাজের এ বিভক্তি সবচেয়ে বেশি শুরু হয়েছে চার বছর আগে থেকে যখন রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় আসেন।

তিনি বলেন, ‘ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী জো বাইডেনের প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতায় আসার মাধ্যমে মার্কিন সমাজের এ বিভক্তি দূর করার প্রচেষ্টা শুরু হয়েছে। আর এই একটি নির্বাচন দিয়েই সামাজিক বিভাজন দূর হবে না।’

সাক্ষাতকারে বারাক ওবামা বলেন, ‘মেরু অঞ্চলীয় এ সমাজ ব্যবস্থা সংস্কার ও টিকিয়ে রাখতে কেবল রাজনীতিবিদদের সিদ্ধান্তের ওপরই ছেড়ে দেওয়া যাবে না। এর জন্য প্রয়োজন সমাজের কাঠামোগত পরিবর্তন। সমাজে একটি সত্য সাধারণ ঐক্যমতে পৌঁছাতে মানুষের কী করা উচিত সে ব্যাপারে একে অপরের কথা শোনাও প্রয়োজন। এর মাধ্যমেই মার্কিনিরা ঐক্যে পৌঁছাতে পারবে।’

৩ নভেম্বরের নির্বাচনে পরাজয় মেনে নেননি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। নির্বাচনে উভয় প্রার্থী কাছাকাছি ভোট পেয়েছেন। বারাক ওবামা বলেছেন, দুই প্রার্থীর সাত কোটির বেশি ভোট পাওয়া প্রমাণ করে আমেরিকার সমাজ কতটা বিভক্ত হয়ে পড়েছে। এ নিয়ে তার মধ্যে কোনো উদ্বেগ কাজ করছে কি না? এমন প্রশ্নের জবাবে বারাক ওবামা বলেছেন, অবশ্যই। এমন বাস্তবতায় গণতান্ত্রিক কাজকর্ম চালিয়ে যাওয়া বেশ দুরূহ হয়ে ওঠে।

আমেরিকার ইতিহাসে প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। জনপ্রিয় এ সাবেক প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ‘২০০৮ সালে তার নির্বাচনের মধ্য দিয়েই মার্কিন সমাজে নতুন যাত্রার শুরু হয়।’

তিনি বলেন, ‘২০০৮ সালে ক্ষমতায় আসার পর মার্কিন সমাজে যে বিভাজন পেয়েছি এখন নিশ্চিতভাবেই তা আরও প্রকট হয়েছে। আর তা হয়েছে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ‘ভক্তদলের মধ্যে বিভাজন’ তৈরির কারণেই। যদিও তা রাজনীতির জন্য সাময়িক ভালো। তবে পরে তা সমাজে নেতিবাচক প্রভাবই ফেলে। কিছু কিছু অনলাইন গণমাধ্যমে ভুল তথ্য ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। গ্রামীণ ও শহুরে সমাজের মধ্যে বিভাজন ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। অভিবাসন নীতিকে কট্টর করা হয়েছে। সমাজে অবিচার করা হয়েছে।’

ওবামা বলেন, ‘পরবর্তী প্রজন্মকে এ ব্যাপারে আরও সতর্ক হবে। সবকিছুর শেষে শুভ শক্তিই জয়ী হবে- এ ধারণার অন্তরে লালন করতে হবে পরবর্তী প্রজন্মকে।

সাক্ষাৎকারে প্রেসিডেন্ট ওবামা বলেছেন, ‘পরিস্থিতি তাকে বাধ্য করেছে জো বাইডেনের পক্ষে মাঠে নামতে। প্রথা ভেঙেই ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে নির্বাচনী প্রচারে বারাক ওবামা যোগ দিয়েছেন। সরাসরি কঠিন সমালোচনা করেছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নিয়ে। এমন সংকটজনক পরিস্থিতিতে সঠিক ভূমিকা না রাখার জন্য রিপাবলিকান দলের দায়িত্বশীল নেতৃত্বের কঠিন সমালোচনা করেছেন তিনি।

প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালনের জন্য জো বাইডেনকে তার পরামর্শ দেওয়ার প্রয়োজন পড়বে না উল্লেখ করে ওবামা বলেছেন, জো বাইডেনকে যখনই সম্ভব, সাহায্য করতে তিনি প্রস্তুত।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *