Logo
Notice :
Welcome To Our Website...
চাকরি দেওয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নেওয়াই তাদের পেশা!

চাকরি দেওয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নেওয়াই তাদের পেশা!

বাংলাদেশ ক্রাইম // রাজধানীর মিরপুর, ভাটারা এলাকা এবং আশুলিয়া-সাভার থেকে ভুয়া চাকুরিদাতা প্রতিষ্ঠানের ২৮ জন প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৪। গতকাল রোববার পৃথক এসব অভিযানে চাকরিপ্রার্থী ৫০ জন ভুক্তভোগীকেও উদ্ধার করা হয়। র‍্যাব-৪ এর অপারেশন অফিসার সহকারী পুলিশ সুপার মো. জিয়াউর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, রোববার সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ও গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় যে, কিছু ভুয়া নামধারী ভিন্ন ভিন্ন কোম্পানি চাকরিপ্রার্থীদের কাছ থেকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেওয়ার নাম করে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৪ এর বিশেষ আভিযানিক দল দুপুর ২টার পর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত রাজধানীর মিরপুর, ভাটারাসহ ঢাকা জেলার আশুলিয়া-সাভার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় ভিন্ন ভিন্ন ভুয়া চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানের চাকরিপ্রার্থী মোট ৫০ ভুক্তভোগীকে উদ্ধারসহ ২৮ জন প্রতারককে গ্রেপ্তার করা হয়।

অভিযানগুলো সম্পর্কে র‍্যাব জানায়, রাজধানীর শাহ আলী থানার মুক্ত বাংলা শপিং কমপ্লেক্সে “প্রসেস সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেড” নামক প্রতিষ্ঠান হতে ৬৫টি জীবন বৃত্তান্ত ফর্ম, তিনটি সিল, একটি ব্যানার, চারটি ডায়রি এবং চারজন ভুক্তভোগীসহ ভুয়া চাকরিদাতা ছয়জন প্রতারককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন-মো. মোসলে উদ্দিন (৪২), মো. ফজলুল ইসলাম (৪০), মো. আব্দুল মান্নান (৫২), মো. রেজওয়ান মাহমুদ রনি (২১), রাজু চন্দ্র শর্মা (২৪) ও মো. সাখাওয়াত হোসেন সজিব (২২)।

রাজধানীর কাফরুল থানার সেনপাড়া পর্বতা এলাকায় “Oyster International limited” নামক প্রতিষ্ঠান হতে দুটি ভর্তির আবেদন বই, দুটি অঙ্গীকারনামা বই, চারটি স্ট্যাম্প সিল, একটি ব্যানার, সাতটি আইডি কার্ড, তিনটি টাকা জমার রশিদ বই, একটি টাকা খতিয়ান বই, নগদ ৮ হাজার ৩৯৬ টাকা ও ১৬ জন ভুক্তভোগীসহ ভুয়া চাকরিদাতা পাঁচজন প্রতারককে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। তারা হলেন -আল-রাব্বি হাসা (৩৫), নুর কালাম (৩১), হাসিবুর রহমান (২১), ফয়েজ (২৮) ও মো. মামুন মিয়া (২১)।

এ ছাড়াও রাজধানীর প্রগতি সরণির নর্দা এলাকায় “Amecon security services limited” নামক প্রতিষ্ঠান হতে ২২টি চাকরির বিজ্ঞাপন, ১৮টি ব্যাংকে টাকা জমার রশিদ, সাতটি রেজিস্টার বই, ৬৫টি জীবন বৃত্তান্ত ফর্ম, ৫০টি লিফলেট, ৭১টি বিজ্ঞাপন, আটটি সিল ও ৯ জন ভুক্তভোগীসহ ভুয়া চাকরিদাতা দুজন প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। তারা হলেন-গোলাম মোস্তফা (৫৫) ও তোফাজ্জল হোসেন (৫২)।

র‍্যাব আরও জানায়, ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানাধীন টোংগাবাড়ি এলাকায় “Gym Security Ltd” নামক প্রতিষ্ঠান হতে ৪০টি নিয়োগ বিজ্ঞাপন ফর্ম, তিনটি ভর্তি ফর্ম, সাতটি হলফনামা, ১০টি আইডি কার্ড, সাতটি যোগদানপত্র ও ১৫ জন ভুক্তভোগীসহ ভুয়া চাকরিদাতা ১৪ জন প্রতারককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন-মো. সোহেল রানা (৩২), মো. ইমরান (১৮), মো. রাব্বি মাহমুদ (১৮), ইব্রাহিম শেখ (২৪), চয়ন বাড়ই (১৯), মো. ফাহাদ (১৮), মো. হাবিব (১৮), মো. রাসেল (১৮), মো. বাদল আহমেদ (১৮), মো. তাওসিফ (২০), মো. ইমরুল কায়েস (২৪), মোছা. মোস্তাফিম মজরিনা ওরফে হ্যাপি (২১), হালিমা আক্তার (১৮) ও জহুরা আক্তার বিথি (১৯)।

অপর এক ঘটনা সম্পর্কে র‍্যাব জানায়, ঢাকা জেলার সাভার থানার কালমা এলাকা থেকে আয়কর অফিসে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগে দুটি ভুয়া নিয়োগপত্র ও ছয়জন ভুক্তভোগীসহ ভুয়া চাকরিদাতা একজন প্রতারককে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার ব্যাক্তির নাম-মো. গিয়াস সরদার (৬০)।

গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে র‍্যাব জানায়, তারা রাজধানী ঢাকাসহ জেলার বিভিন্ন এলাকায় অফিস ভাড়া করে বিভিন্ন নামে বেনামে ভূঁইফোড় প্রতিষ্ঠান খুলে দেশের বিভিন্ন স্থান হতে মধ্যশিক্ষিত বেকার ও আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল যুবক/যুবতীদের আকর্ষণীয় ও উচ্চ বেতনের চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ভুয়া নিয়োগপত্র দিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ প্রতারক চক্রটি ভুক্তভোগী জনসাধারণের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল।

গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতারক সদস্যদের গ্রেপ্তারের জন্য গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রয়েছে বলেও জানিয়েছে র‌্যাব-৪।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *