Logo
Notice :
Welcome To Our Website...
বিভক্ত আওয়ামী লীগ

বিভক্ত আওয়ামী লীগ

বাংলাদেশ ক্রাইম // বগুড়ার শেরপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়ন পেতে আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীরা দৌড়ঝাঁপ করছেন। এ পর্যন্ত পাঁচ নেতার নাম আলোচনায় আছে। তাদের পোস্টার, ব্যানার ও বিলবোর্ডও দেখা যাচ্ছে পৌর এলাকার অলিগলিতে। দলীয় মনোনয়ন পেতে হাইকমান্ডের নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে চলছেন তারা।

১৬ জানুয়ারি শেরপুর পৌরসভার নির্বাচন সামনে রেখে গত ৪ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় শেরপুর পৌর আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতির ছেলের একক নাম পৌর কমিটির রেজ্যুলেশনের মাধ্যমে কেন্দ্রে পাঠানোকে কেন্দ্র করে এখন দ্বিধাবিভক্ত উপজেলা আওয়ামী লীগ। পৌর আওয়ামী লীগের এমন সিদ্ধান্তকে বৃদ্ধাঙ্গলি দেখিয়ে দলীয় প্রার্থী মনোনয়নে স্থানীয় সংসদ সদস্যের সুপারিশসংবলিত পাঁচ মনোনয়নপ্রত্যাশীর একটি তালিকাসহ আবেদন করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ। এদিকে জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নিজে উপজেলা চেয়ারম্যান হলেও এবার নিজের ছেলেকে মেয়র বানানোর চেষ্টা, ১০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য শেরপুর উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনে স্ত্রী শিল্পী বেগমকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে দাঁড় করানো নিয়ে ক্ষুব্ধ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের অধিকাংশ নেতাকর্মী।

আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশীরা হলেন বর্তমান মেয়র ও শেরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ আবদুস সাত্তার ও সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব আম্বিয়া, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ মজিবর রহমান মজনুর ছেলে শিল্পপতি আলহাজ সরোয়ার রহমান মিন্টু, শেরপুর পৌরসভার কাউন্সিলর ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বদরুল ইসলাম পোদ্দার ববি ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি তারিকুল ইসলাম তারেক।

শেরপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ মকবুল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম মজনু বলেন, পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ড কমিটির নেতাকর্মীদের সমর্থন নিয়েই দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশী পাঁচজনের নাম জেলা আওয়ামী লীগের মাধ্যমে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে শেরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ মো. আবদুস সাত্তার বলেন, আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দল করি, দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে নই, দল যে কাউকে নৌকা প্রতীক দিলে তার পক্ষেই কাজ করব। তা ছাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র পদে পাঁচজনের নামের তালিকা কেন্দ্রে পাঠিয়েছে।

এ প্রসঙ্গে বগুড়া-৫ (শেরপুর-ধুনট) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ হাবিবর রহমান বলেন, শেরপুর পৌরসভায় মেয়র পদে দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশীদের তালিকা পাঠানোর ব্যাপারে শহর আওয়ামী লীগ আমার সঙ্গে কোনো পরামর্শ করেনি। তবে উপজেলা আওয়ামী লীগ কর্তৃক পাঁচজনের নামে তালিকাসংবলিত আবেদনে কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে একটি সুপারিশ করেছি।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *