Logo
Notice :
Welcome To Our Website...
‘বিএনপি একবার মাথা বের করে, পরক্ষণেই আবার লুকিয়ে নেয়’

‘বিএনপি একবার মাথা বের করে, পরক্ষণেই আবার লুকিয়ে নেয়’

নিজস্ব প্রতিবেদক // বিএনপির আত্মবিশ্বাস তলানিতে ঠেকেছে বলেই নির্বাচনে জয়-পরাজয়ের আগেই তারা হেরে যায় বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এ সময় বিএনপির রাজনীতিকে কচ্ছপের সঙ্গে তুলনা করে তিনি বলেন, ‘তারা একবার মাথা বের করে, পরক্ষণেই আবার মাথা লুকিয়ে নেয়।’ আজ রোববার তার সরকারি বাসভবন থেকে সমসাময়িক বিষয়ে এক ব্রিফিংয়ে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

সরকার বিভিন্ন রায়ের মধ্য দিয়ে নাকি আদালতকে ব্যবহার করছে, বিএনপি নেতাদের এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘প্রকৃতপক্ষে দেশের বিচার বিভাগ স্বাধীনভাবে কাজ করছে। উচ্চ ও নিম্ন আদালতে সরকারের কোন হস্তক্ষেপ নেই।’

তিনি বলেন, ‘আইনের প্রতি শ্রদ্ধা আছে বলেই সরকার বিচারিক প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করে না। বরং বিএনপিই দ্বিচারিতার আশ্রয় নেয় আইন – আদালতকে ঘিরে। তারা মামলায় জিতলে বলে বিচার বিভাগ স্বাধীন, আর হারলে বলে সরকার হস্তক্ষেপ করেছে।’

২০১৮ সালের জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিয়েছিল নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপি তখন সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা ব্যাহত ও বাধাগ্রস্ত করতে এবং গণতন্ত্রকে সংকটে ফেলতে চেয়েছিল। জনগণ ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে সরকার গঠন করার সুযোগ দিয়েছিল বলেই সমগ্র বাংলাদেশে আজ উন্নয়ন, অগ্রগতি এবং সমৃদ্ধি অর্জনের পথে অদম্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে।’

নির্বাচন নিয়ে বিএনপির অভিযোগের জবাবে প্রশ্ন রেখে ওবায়দুল কাদের বলেন, তাহলে তারা নির্বাচনী ট্রাইবুনালে যায়নি কেন?

সরকার দেশে বিএনপি শূন্য করতে চায়-এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘এই অভিযোগ অবান্তর, সরকার বিএপিকে শক্তিশালী এবং দায়িত্বশীল বিরোধীদলের ভূমিকায় দেখতে চায়।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশের জনগণও চায় বিএনপি মেরুদণ্ড সোজা করে দাঁড়াক। জনগণ চায় তারা স্বাধীনতা বিরোধী উগ্র সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর পৃষ্ঠপোষকতা ছেড়ে দিয়ে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের চেতনায় রাজনীতি করুক। বিরোধীদল শক্তিশালী হলে গণতন্ত্রের অভিযাত্রায় গুণগত পরিবর্তন আসে।’

সেতুমন্ত্রী জানান, ‘একদলীয় কোন চর্চা সরকারের কাজে ও মনস্তত্বে নেই। সরকার জনগণের ক্ষমাতায়নে বিশ্বাসী। সমৃদ্ধ আগামী গড়তে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী দায়িত্বশীল বিরোধীদল।’

জনগণ ও রাষ্ট্রের সম্পদ আগুনে যারা পোড়ায়, সন্ত্রাস নির্ভরতা যাদের আন্দোলনের চালিকাশক্তি, তাদের হাত থেকে জনগণের প্রাণ আর সম্পদের সুরক্ষা করা সরকারের দায়িত্ব বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি আরও বলেন, আন্দোলন আর সন্ত্রাস এক কথা নয়। প্রতিবাদ আর সহিংসতা এক কথা নয়।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ব্লুমবার্গ টিভির প্রতিবেদনে করোনাকালীন এবং করোনা পরবর্তী বিশ্ব অর্থনীতির হালচাল- প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘করোনা মহামারি মোকাবিলা করে আর্থসামাজিক অবস্থা ধরে রেখে বসবাস উপযোগী ধারা বজায় রাখতে বিশ্বের শীর্ষ ২০টি দেশের মধ্যে রয়েছে এখন বাংলাদেশ।’

কোভিড সহনশীলতা র্যাংকিংয়ে ও জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে শেখ হাসিনার দূরদর্শী, সুদক্ষ ও মানবিক নেতৃত্বের পরিচয় স্পষ্ট হয়েছে। সরকারের এই উন্নয়ন ও অর্জনের সংবাদ বিএনপি চোখে দেখে না বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *