Logo
Notice :
Welcome To Our Website...
পশ্চিমবঙ্গে ফের ক্ষমতায় ফিরছে তৃণমূল: সমীক্ষা

পশ্চিমবঙ্গে ফের ক্ষমতায় ফিরছে তৃণমূল: সমীক্ষা

বাংলাদেশ ক্রাইম // পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে ফের তৃতীয়বারের মতো ক্ষমতায় আসতে চলেছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। অন্তত তৃণমূলের অভ্যন্তরীণ সমীক্ষায় এমন রিপোর্ট উঠে এসেছে বলে সংবাদে প্রকাশ। ওই সমীক্ষায় বলা হয়েছে, একুশের নির্বাচনে বাংলায় ৫১.২ শতাংশ ভোট পেয়ে মোট ১৯০ টির কাছাকাছি আসন নিয়ে ফের ক্ষমতায় আসতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

 

অন্যদিকে বিজেপি পেতে পারে মাত্র ৯৮ টি আসন। সেক্ষেত্রে বিজেপি এবং তৃণমূল মিলিয়ে বাংলায় ২৯৪ টি আসনের মধ্যে দখলে নিতে পারে ২৮৮ টি আসন। সমীক্ষা অনুযায়ি, বাদবাকি আসনের মধ্যে ৬ টি আসনই কংগ্রেস পেতে পারে। সেক্ষেত্রে বামপন্থীরা বিগ জিরো পাবে বলেও সমীক্ষায় উঠে এসেছে।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনে বাংলার মাটিতে কার্যত সাইনবোর্ড হয়ে গিয়েছিলো বামেরা। সেই সময় কংগ্রেস দুটি আসন পেলেও বামেরা বাংলার মাটিতে কোনও খাতা খুলতে পারেনি। সে অবস্থা এবারের বিধানসভা নির্বাচনেও বামপন্থীদের হতে পারে বলে ইঙ্গিত মিলেছে। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের নিরিখে বাংলার ২৯৪ টি আসনের মধ্যে সিপিএম বা বামেরা একটি আসনেও এগিয়ে নেই। এই পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক মহলের ধারনা, ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে দেখা গিয়েছে, বাংলার বামভোটের সিংহভাগ ভোটই চলে গিয়েছিলো বিজেপিতে। হাজার চেষ্টা করেও বামপন্থীরা তাদের ভোটব্যাংককে ফিরিয়ে আনতে পারেননি তাদের ঘরে। এবারে একুশের নির্বাচনের আগে তৃণমূলের অভ্যন্তরীণ সমীক্ষা বলছে, সেই ধারা একুশের বিধানসভা নির্বাচনেও অব্যাহত থাকবে। মূলত বামভোট রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের বিরোধীতার মুখে দাঁড়িয়ে চলে যাবে বিজেপির দিকে।

তার ফলে একুশেতেও রাজ্যের বেশ কিছু জেলাতে ভালো ফল করতে পারে বিজেপি। মূলত যে সমস্ত জেলাগুলিতে বরাবরই বামেদের দাপট ছিলো সেই সমস্ত জেলাতে বিজেপি ভালো ফল করতে পারে বলেই মনে করা হচ্ছে। আসলে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস বাংলায় ক্ষমতায় আসার পর থেকে সিপিএম বা বামপন্থীরা সেই অর্থে আর মেরুদন্ড সোজা করে দাঁড়িয়ে উঠতে পারেনি। সেখানে দাঁড়িয়ে রাজ্যের বহু স্থানে সিপিএমের অনেক নেতা কর্মীরা রাজ্যের শাসক দলের কাছ থেকে হার্মাদ তকমা পেয়ে কার্যত সমাজের বুকে কোণঠাসা অবস্থায় হয়েছিলেন।

তার উপর সিপিএমের অনেক কর্মী সমর্থকরা তৃণমূলের সঙ্গে নিজেদের খাপ খাইয়ে নিতে পারেননি। ফলে গত ৯ বছরের বেশী সময়ে রাজ্যের শাসক দলের উপর ক্ষোভ বেড়েছে সিপিএমের নীচুতলার বহু কর্মী সমর্থকদের। অথচ সিপিএমের ওই সমস্ত নেতা কর্মী এবং সমর্থকদের সেই অর্থে নিরাপত্তা সেভাবে যেমন দিতে পারেনি বাম নেতৃত্ব, তেমনি তাদের নিয়েও বিরোধী আন্দোলনকেও সংগঠিত করতে ব্যর্থ হয়েছে তারা।

ফলে বামেদের নীচুতলার সেই নেতা কর্মী এবং সমর্থকরা তৃণমূলের উপর বুকে ক্ষোভের আগুন নিয়ে যোগ দিয়েছেন গেরুয়া শিবিরে। কারন, গত এক বছরের বেশী সময় ধরে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরোধীতায় অন্যতম প্রতিবাদের মুখ হয়ে উঠে এসেছে বিজেপি।

ফলে বামেদের একটা বড়ো অংশ আজ বিজেপির ছত্রছায়ায় গিয়ে চাইছেন রাজ্যের পরিবর্তিন ঘাটাতে। আর সেখানে দাড়িয়েই বামেদের ভোটে বিজেপির শক্তিবৃদ্ধি হলেও বামেরা মূলত তাদের ভোট ব্যাংককে হারিয়ে ফের বিগ জিরো পেতে চলেছেন বলেই রাজনৈতিক মহলও মনে করছেন।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *