Logo
Notice :
Welcome To Our Website...
নিউজিল্যান্ড টেস্টের দ্বিতীয় দিন বাংলাদেশময়

নিউজিল্যান্ড টেস্টের দ্বিতীয় দিন বাংলাদেশময়

ডেক্স রিপোর্ট // পাঁচ উইকেট হাতে রেখে দ্বিতীয় দিন শুরু করা নিউজিল্যান্ডকে বেশিক্ষণ ব্যাটিং করতে দেয়নি বাংলাদেশের বোলাররা। প্রথম সেশনেই কিউইদের গুটিয়ে দেন শরিফুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজরা। দারুণ সকালের পর ব্যাটিং করতে এসেও বেশ সাবলীল দেখা যায় টাইগার ব্যাটারদের। তবে ওপেনিং জুটি দীর্ঘ হওয়ার পথে ভুল শটে সাজঘরে ফেরেন সাদমান ইসলাম। এরপর পুরো দিন আলো হয়ে ছিলেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও আরেক ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয়। যদিও শেষ বেলায় শান্তের বিদায়ে খানিকটা মলিন হয় বাংলাদেশের রঙিন দিন।

আজ রোববার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ৬৭ ওভার ব্যাট করে দুই উইকেট হারিয়ে ১৭৫ রান তুলেছে বাংলাদেশ। টসে হেরে ব্যাট করা নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ৩২৮ রান। কিউইদের লিড থেকে ১৫৩ রান পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় দিন শেষ করলো সফরকারীরা। ব্যাট হাতে একপ্রান্তে থাকা জয় ৭০ রানে অপরাজিত এবং অন্যপ্রান্তে তার সঙ্গী মুমিনুল হক ৮ রানে।

কিউইদের লিড মোকাবিলায় ব্যাট করতে এসে দারুণ শুরু করেন দুই টাইগার ওপেনার সাদমান ইসলাম ও মাহমুদুল হাসান জয়। ব্যাট হাতে বেশ সাবলীল দেখা যায় তাদের। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রানও তোলেন এই যুগল। পানি পানের বিরতি থেকে ফিরে আর স্থায়ী হয়নি বাংলাদেশের ওপেনিং জুটি।

১৯তম ওভারের প্রথম বলে সাদমানকে ফাঁদে ফেরেন ওয়াগনার। বাঁহাতি পেসারের ফুলটস বল অন সাইডে ফ্লিক করতে চেয়েছিলেন সাদমান। কিন্ত বল ব্যাটের ওপরের দিকে লেগে ফিরতি ক্যাচ যায় ওয়েগনারের হাতে। সামনে ঝাপিয়ে ক্যাচ নিয়ে সাদমানকে সাজঘরের পথ দেখান তিনি। তাতেই ৪৩ রানের জুটি ভেঙে ৫৫ বলে ২২ রান করে সাজঘরে ফেরেন এই ওপেনার।

তিনে এসে খুব সতর্কতার সঙ্গে ব্যাট চালান শান্ত। প্রতিপক্ষের বোলারদের তোপের মুখেও জয়কে নিয়ে রান তুলতে থাকেন তিনি। ৩১ ওভার ব্যাট করে এক উইকেট হারিয়ে ৭০ রান করে চা বিরতিতে যায় বাংলাদেশ। ফিরে রান তোলায় মনোযোগ দেন শান্ত। এই ব্যাটারকে দারুণ সঙ্গ দেন ওপেনার জয়। ৫১তম ওভারের দ্বিতীয় বলে রাচীন রবীন্দ্রকে ছক্কা হাঁকিয়ে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় অর্ধশতক তুলে নেন শান্ত।

শুরু থেকে ব্যাট করা জয় দারুণ দৃঢ়তার সঙ্গে কিউ্ই পেসারদের মোকবিলা করে যাচ্ছিলেন। খুবই দেখে শুনে শট খেলার চেষ্টা করে যাচ্ছিলেন তিনি। শান্ত দ্রুত ফিফটি পেলেও জয়ের ফিফটি পেতে অপেক্ষা করতে হয়েছিল বেশি। ১৬৫ বল মোকাবিলার পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম অর্ধশতকের দেখা পান তিনি।

এই যুগলের শতরান পেরোনো জুটি মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছিলো নিউজিল্যান্ডের। সেই মাথা ব্যর্থার কারণও খুব সহজে সমাধান করেন ওয়াগনার। নিজের দ্বিতীয় শিকার বানান শান্তকে (৬৪)। এতেই ১০৪ রানের বিশাল জুটি ভেঙে সাজঘরে ফেরেন এই ব্যাটার। শেষ বিকেলে কিউইদের স্বস্তির খোরাক মেটাবে শান্তের উইকেট। তৃতীয় উইকেটের জুটিতে মুমিনুলের সঙ্গে ২৩ রানের জুটি গড়ে দিন শেষ করেন জয়।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *